সোনার বাংলাদেশ

১৩ দিনে বিভিন্ন সড়কে প্রাণহানি হয়েছে ২৫৯ জনের

ঈদুল আজহার আগে ও পরে ১৩ দিনে দেশের বিভিন্ন সড়কে ২৩৭টি দুর্ঘটনা ঘটেছে। প্রাণহানি হয়েছে ২৫৯ জনের। আর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৯৬০ জন।

শুক্রবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

সাগর-রুনি মিলনায়তনে ‘বাংলাদেশ যাত্রীকল্যাণ সমিতি’ আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, ১৬ আগস্ট থেকে ২৮ আগস্ট পর্যন্ত ১৩ দিনে সারা দেশে ২৩৭টি দুর্ঘটনা ঘটেছে। ২৫৯ জন নিহত ও ৯৬০ জন আহত হয়েছে। এর মধ্যে ১২ জন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, ৪ জন চিকিৎসক, ২ জন প্রকৌশলী, ২ জন সাংবাদিক, ২ জন শিক্ষক, ২০ জন শিক্ষার্থী, ৪২ জন চালক-হেলপার, ৫৯ জন নারী, ৩৪ জন শিশু ও ৮ জন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী রয়েছেন।

সংগঠনটির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, ‘ঈদযাত্রায় সরকারের বিভিন্ন সংস্থার নানামুখী তৎপরতা ও মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করার কারণে ঈদুল ফিতরের তুলনায় দুর্ঘটনা কমেছে। ২৯ দশমিক ১৮ শতাংশ বাস, ২৩ দশমিক ৬ শতাংশ ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান, ৬ দশমিক ৬ শতাংশ নছিমন-করিমন, ৫ দশমিক ৯ শতাংশ ব্যাটারি চালিত রিকশা ও ইজিবাইক, ১১ দশমিক ১৫ শতাংশ অটোরিকশা, ৬ দশমিক ৯ শতাংশ কার-মাইক্রোবাস ও ১৬ দশমিক ৭২ শতাংশ মোটরসাইকেল, ৯ দশমিক ১৬ শতাংশ অনান্য যানবাহন দুর্ঘটনার শিকার হয়। ফিটনেসবিহীন যানবাহন ও পণ্যবাহী যানবাহনে যাত্রী বহন, বিশ্রাম না নিয়ে যানবাহন চালানো, অপ্রাপ্ত বয়স্ক ও অদক্ষ চালক দিয়ে গাড়ি চালানো, সড়ক-মহাসড়কে ফুটপাত না থাকা ও সড়কের অবস্থা নাজুক হওয়ার কারণে এসব দুর্ঘটনা ঘটেছে।’ রাইজিংবিডি

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close