ইংল্যান্ডএডিটর্স পিকসখবরটপ স্টোরিজ

বরিস জনসনকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছেন তার স্ত্রী

যুক্তরাজ্যের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসনের নারীঘটিত সম্পর্কের প্রতিবেদন প্রকাশ হবার পর তাকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছেন তার স্ত্রী মারিনা হুইলার। এছাড়াও এ ঘটনার জন্য তাদের কন্যা লারা নিজ বাবাকে ‘স্বার্থপর বেজন্মা’ উল্লেখ করে বলেন তার মায়েরও তাকে আর কোনোদিন গ্রহণ করা উচিৎ নয়।

শুক্রবার বরিস জনসন এবং তার স্ত্রী ম্যারিনা ঘোষণা দেন যে দীর্ঘদিন যাবত তারা আলাদা বসবাস করছেন। এছাড়াও সংসার চলাকালীন সময় ম্যারিনার সঙ্গে প্রতারণা করে আরও কয়েকটি সম্পর্কে জড়ানোর কারণে বরিস জনসনকে ডিভোর্স দিচ্ছেন বলেও জানিয়েছেন।

এক বিবৃতিততে ৫৪ বছর বয়সী এই যুগলদ্বয় বলেন, ‘কয়েকমাস আগে, আমাদের ২৫ বছর সংসার জীবন কাটানোর পর আমরা সিদ্ধান্ত নিই, আমাদের আলাদা হয়ে যাওয়া উচিত। আমরা বিচ্ছেদের কথা ভেবেছি এবং তা প্রক্রিয়াধীন। পরবর্তীতে বন্ধুর মতো আমরা আমাদের ৪ সন্তানের পাশে থেকে দেখাশোনা করবো। কিন্তু একসাথে আর থাকা হবেনা।’

উল্লেখ্য, এর আগেও বরিস জনসনকে পরকীয়ার কারণে দুইবার বাড়ি থেকে বের করে দেওয়া হয়েছিলো। প্রথমবার ২০০৪ সালে লেখিকা পেট্রোনেলা ওয়াটের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানোর কারণে এবং পরেরবার ২০১০ সালে শিল্প পরামর্শদাতা হেলিন মেসিনটায়ারের সন্তানের জনক হবার পরে। ডেইলি মেইল

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close