ধর্ম

গৃহকর্মীরা সাথে নবীজির (সা.) আচরণ

ঘরের সেবায় নিয়োজিত পরিচারিকার সাথে অত্যন্ত সহনশীলতা এবং ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টি দিতেন। প্রিয় নবী সা. এর ঘরে অবস্থানকারী সাহাবি হযরত আনাস (রা.) বলেন, ‘আমি দশ বছর ধরে রাসূল (সা.) এর খেদমত করেছি। আল্লাহর কসম! তিনি কোনো দিন আমাকে বকা দেননি। কোনো দিন উফ্ বলেননি। কখনো বলেননি, এ কাজটি কেন করেছ? এ কাজটি কেন করোনি?’ (বুখারি, হাদিস নং : ৬৪৩০)

আয়েশা (রা.) বলেন, রাসূল (সা.) কখনো কোনো বস্তুকে কিছু দিয়ে আঘাত করেননি। তার কোনো স্ত্রী ও সেবক-গৃহকর্মীকে প্রহার করেননি। শুধুমাত্র তিনি আল্লাহর রাস্তায় সংগ্রাম করেছিলেন। কারো থেকে কখনো প্রতিশোধ গ্রহণ করেননি। কিন্তু আল্লাহর অসম্মানী করা হলে, তখন আল্লাহর জন্য প্রতিশোধ নিয়েছেন।’ (মুসলিম, হাদিস নং: ২৩২৮)

সেবক ও গৃহকর্মীরা মানুষ। কখনো না কখনো ভুল করেই থাকে। কাজের ক্ষেত্রে তাদের দুর্বলতা প্রকাশ পেয়ে থাকে। তা সত্ত্বেও রাসূল (সা.) তাদের ভুল-ত্রুটিগুলোর দিকে নজর দিতেন না। বরং তাদের দুর্বলতাগুলো ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখতেন।

আবদুল্লাহ ইবনে উমর (রা.) থেকে বর্ণিত, একলোক একবার রাসূল (সা.)-এর কাছে এসে বলে, গৃহকর্মীদের আমরা আর কত ক্ষমা করবো? তখন তিনি চুপ থাকেন। লোকটি আবার একই প্রশ্ন করে। এভাবে তিনবার প্রশ্ন করার পর রাসূল (সা.) বলেন, ‘তাদের দৈনিক সত্তর বার করে ক্ষমা করো।’ (আবু দাউদ, হাদিস নং : ৪৪৯৬) আমাদেরসময়.কম

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close