সোশ্যাল মিডিয়া

বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতির ইলেকট্রিক এরোপ্লেন

ঘণ্টায় ৩০০ মাইল বেগে ছুটে চলতে সক্ষম বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতির ইলেকট্রিক এরোপ্লেন তৈরির পরিকল্পনা করেছে রোলস রয়েস। এই বিমানের পোশাকি নাম দেয়া হয়েছে ‘এসিসিইএল’।

কোম্পানিটি জানিয়েছে, শিগগিরই এই বিমান আকাশে উড়ে নতুন রেকর্ড গড়ে তুলবে। রোলস রয়েসের প্রজেক্ট ‘এসিসিইএল’ এর পুরো নাম ‘অ্যাক্সিলারেটিং দ্য ইলেকট্রিফিকেশন অব ফ্লাইট’। এর আগে ২০১৭ সালে সিমেন্সের তৈরি ইলেকট্রিক এরোপ্লেন ঘণ্টায় ২১০ মাইল বেগে ছুটে রেকর্ড গড়েছিল। রোলস রয়েস বলছে, সেই রেকর্ড ভাঙতে সক্ষম তাদের নতুন ইলেকট্রিক এরোপ্লেন।

২০২০ সালে গ্রেট ব্রিটেনের আকাশে উড়বে রোলস রয়েসের তৈরি সর্বোচ্চ গতির ইলেকট্রিক বিমান। ঘণ্টায় ৩০০ মাইল বেগে ছুটে চলে ইতিহাসের সবচেয়ে দ্রুতগতির ইলেকট্রিক বিমানের স্বীকৃতি পেতে চলেছে ‘এসিসিইএল’।

এই প্রজেক্টের ম্যানেজার ম্যাথিউ পার জানিয়েছেন, বিমানটিতে সবচেয়ে আধুনিক ইলেকট্রিক সিস্টেম যেমন থাকছে, তেমনি তাতে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী ব্যাটারি ব্যবহার করা হবে। এ বছর নতুন এই এরোপ্লেনের পরীক্ষামূলক উড্ডয়ন সম্পন্ন হবে ও আগামী বছরই তা আকাশে উড়তে সক্ষম হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। নতুন এই প্রজেক্ট সফল করতে রোলস রয়েসের দক্ষ সব ইঞ্জিনিয়ার, ডিজাইনার ও ডেটা স্পেশালিস্টরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন।

‘এসিসিইএল’ বিমানগুলোতে ৭৫০আর-এর হালকা তিনটি ই-মোটর। আর এই বিমান খুব শব্দ দূষণ না করেই উড়বে। তবে প্রজেক্টের পুরো টিমের কাছে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হতে চলেছে বিমানটির ব্যাটারি। কারণ একাধারে সবচেয়ে শক্তিশালী ও তুলনামূলকভাবে হালকা ব্যাটারি তৈরি করতে হচ্ছে তাদের। এক্ষেত্রে কার্বন নিঃসরণ বন্ধ করা ও ইলেকট্রিক শক্তিতে চলা যানবাহন তৈরিতে নেতৃত্ব দিতে চায় রোলস রয়েস।

তথ্যসূত্র: ডেইলি মেইল

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close