ধর্ম

স্ত্রী ও ৩ সন্তানসহ ইসলাম ধর্ম গ্রহণ

স্ত্রী ও তিন সন্তানসহ ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন পলাশ কুরি (৩২) নামের এক ব্যক্তি। ধর্মান্তরিত হয়ে পলাশ বর্তমানে নিজের নাম রেখেছেন আবদুর রহমান।

গত বৃহস্পতিবার লক্ষ্মীপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এফিডেভিটের মাধ্যমে পলাশ স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।

পলাশের (আবদুর রহমান) পরিবারের আরো যারা ইসলাম গ্রহণ করেছেন- পলাশের স্ত্রী শিখা রানী কুরি, মেয়ে অন্বেষা রানী কুরি, উর্সি রানী কুরি ও ছেলে আবির চন্দ্র কুরি।

ধর্ম পরিবর্তন হওয়ার পরে ওই এফিডেভিটে তাদের বর্তমান নাম লেখা হয়েছে আবদুর রহমান, তার স্ত্রী সুমাইয়া বেগম, মেয়ে আয়েশা আক্তার, খাদিজা আক্তার ও ছেলে মো. ইব্রাহিম।

স্বপরিবারে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার পর আবদুর রহমান ও তার পরিবারের জন্য উপজেলার বিভিন্ন মসজিদে দোয়া করা হয়।

উপজেলার ইছাপুর ইউনিয়নের শ্রীরামপুর বাড়ির বাসিন্দা আবদুর রহমান জানান, আমার ইসলাম ধর্ম গ্রহণে কেউ কোনো চাপ সৃষ্টি করেনি। জ্ঞান হওয়ার পর থেকে ইসলাম ধর্মের প্রতি অনুরক্ত ছিলাম ও এই ধর্মের রীতিনীতি, নিয়মকানুন বিষয়ে জানার চেষ্টা করতাম।

মনে মনে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের ইচ্ছা প্রায়শই জাগলেও নানা কাজ ও পরিবেশের ভিড়ে এতোদিন তা সম্ভব হয়ে ওঠেনি বলে জানান তিনি।

সম্প্রতি তিনি তার ইচ্ছার বিষয়ে স্ত্রীকে জানালে স্ত্রী তাকে অনুপ্রাণিত করেন এবং নিজেও ইসলাম ধর্ম গ্রহণে আগ্রহী বলে জানান।

এরপর গত ১৪ ফেব্রুয়ারি মহান আল্লাহ এবং সর্বশ্রেষ্ঠ নবী হযরত মোহাম্মদ (সঃ) এর প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন পলাশ কুরি (বর্তমান নাম আবদুর রহমান)।

রামগঞ্জ উপজেলার ইছাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদ উল্যাহ জানান, স্বপরিবারে আবদুর রহমানের ইসলাম ধর্ম গ্রহণে রামগঞ্জবাসী আনন্দিত।

আবদুর রহমানের সন্তানদের লেখাপড়াসহ সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে বলে আশ্বাস দেন তিনি।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close