সমগ্র বিশ্ব

বিশ্বের দশম বৃহৎ স্বর্ণ মজুদের মালিক হবে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক

নেদারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংককে ছাড়িয়ে খুব শীঘ্রই বিশ্বে দশম বৃহৎ স্বর্ণ মজুদের মালিক হতে চলেছে রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া-আরবিআই। গত বছরের শেষে ডাচ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের স্বর্ণ মজুদের পরিমাণ অনেকটাই অপরিবর্তিত অবস্থায় রয়েছে। অন্যদিকে, ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংকে স্বর্ণ মজুদের পরিমাণ বাড়ছে। রেডিফ নিউজ, বিজনেস ষ্ট্যা-ার্ড

গত জানুয়ারিতেই কেন্দ্রীয় ব্যাংক-আরবিআই আরো সাড়ে ৬ টন স্বর্ণ কিনেছে। ফলে আরবিআই এর মোট স্বর্ণের সঞ্চয় ৬০৭ টনে উন্নীত হয়। গত সোমবার বিশ্ব স্বর্ণ সংস্থা- ডব্লিউজিসি প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়। সংস্থাটি জানায়, ‘ভারতের মজুদের পরিমাণ বৃদ্ধির ধারা ধীরে ধীরে বাড়ছে, ২০১৮ সালের শেষ নাগাদ যা ৬ দশমিক ২ শতাংশ বেড়েছে। এই ধারা অব্যাহত থাকলে তারা চলতি বছরেই ডাচ কেন্দ্রীয় ব্যাংককে পেছনে ফেলে স্বর্ণ মজুদের দিক থেকে এগিয়ে যাবে।’

তবে শুধু ভারতেই নয় বিশ্বের অন্যান্য দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের স্বর্ণ সঞ্চয়ের পরিমাণও বেড়েছে। বাণিজ্যযুদ্ধের কারণে যা আরো গতি লাভ করে। বিশেষ করে , বিশ্বের অনেক কেন্দ্রীয় ব্যাংক এখন মার্কিন ডলার, ব্রিটিশ পাউন্ড বা ইউরোর সঞ্চয়ের চাইতে স্বর্ণের মতো মুল্যবান ধাতু কেনার পরিমাণ বৃদ্ধি করে।

অবশ্য, এই প্রবণতার পেছনে বেশ কিছু দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি এবং কূটনৈতিক স¤পর্কের বিষয়টিও প্রভাব রাখে। ২০১৮ সালে সবচাইতে বেশি স্বর্ণ কিনেছে রাশিয়ার কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ডলারের ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে নিজ মুদ্রা রূবলকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যেই এই পদক্ষেপ নেয় ব্যাংকটি।

ডব্লিউজিসি আরো জানায়, জানুয়ারিতে বিশ্বব্যাপী কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলোর স্বর্ণ ক্রয়ের পরিমাণ সবচাইতে বেশি হয়েছে। এসময় তারা ৪৮টন স্বর্ণ কেনে এবং ১৩ টন স্বর্ণ বিক্রি করে। মূলত, ৯টি দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক এই সকল কেনাবেচায় অংশ নেয়।

বর্তমানে ভারত বিশ্বের ১১ তম বৃহৎ স্বর্ণ মজুদের মালিক। দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংকের চলতি মজুদের পরিমাণ ৫৫৭ টন। নেদারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মজুদ ৬১২ দশমিক ৫ টন। তবে সবচাইতে বেশি স্বর্ণের মজুদ রয়েছে ইতালির কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে। যার পরিমাণ ২ হাজার ৪৫১ টন। ২ হাজার ৪৩৫ টন মজুদ নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ফ্রান্স। অন্যদিকে, তৃতীয় স্থানে থাকা চীনের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মজুদের পরিমাণ ১ হাজার ৭৯৭ টন।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close