ইংল্যান্ডএডিটর্স পিকসখবরটপ স্টোরিজ

চতুর্থবারের মতো ব্রেক্সিট চুক্তি পার্লামেন্টে উত্থাপন করবেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

জুনের শুরুতে চতুর্থবারের মতো ব্রেক্সিট চুক্তি পার্লামেন্টে উত্থাপন করবেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। যদিও সরকারের বিরোধী লেবার পার্টির সঙ্গে এ নিয়ে কোন সমঝোতা হয় নি। বিবিসি, ডয়েচে ভেলে

ডাউনিং স্ট্রিট জানিয়েছে, এই বিল কার্যকর হলে সংসদের গ্রীষ্মকালীন বিরতির আগেই ইইউ থেকে বেরিয়ে যেতে পারবে ব্রিটেন। তবে লেবার দল বলছে, তারা দুই দলের মধ্যকার সমঝোতা ব্যতিত থেরেসার ব্রেক্সিট চুক্তি সমর্থন করবেন না। আর যদি থেরেসার পরিকল্পনা আবারো পরাজিত হয় সেক্ষেত্রে চুক্তি ছাড়াই ইইউ থেকে বেরিয়ে যাবে ব্রিটেন বা আর্টিকেল-৫০ কার্যকর করা হবে। সরকারী সূত্র বলছে, এবারের চুক্তি অনুমোদনের চেষ্টা ব্যর্থ হলে আর কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে না।

সম্ভবত জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে এই প্রস্তাব পেশ করা হবে। বিলটি পাশে মন্ত্রিসভা ও পার্লামেন্টে এমপিদের সমর্থনের পর পর রানি এলিজাবেথের আনুষ্ঠানিক সম্মতিও আদায় করতে হবে। সাধারণত জুলাই মাসের দ্বিতীয়ার্ধে সংসদে গ্রীষ্মকালীন বিরতি শুরু হয়। সেইসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বিদায় নেবারও প্রস্তুতি শুরু করেছেন তিনি।

ইইউ ব্রিটেনকে ৩১শে অক্টোবরের মধ্যে ব্রেক্সিট কার্যকর করতে সময় দিয়েছে। এই পর্যন্ত তিন বার পার্লামেন্টে থেরেসার ব্রেক্সিট চুক্তি নাকচ হয়েছে। বিরোধী লেবার দলের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে ঐকমত্য অর্জনের চেষ্টা করছেন মে। বুধবার থেরেসা ও করবিন আবারো আলোচনার জন্য একত্রিত হয়েছেন। ব্রিটেনের স্থানীয় নির্বাচনে টোরি ও লেবার দুই দলই অত্যন্ত খারাপ ফল করেছে। আগাম সমীক্ষায় আসন্ন ইউরোপীয় নির্বাচনও তাদের অনুকূলে নেই। দুই প্রধান দলকে পেছনে ফেলে নাইজেল ফারাজের সদ্য গঠিত ব্রেক্সিট পার্টি আপাতত তালিকার শীর্ষে রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে মতবিরোধ সত্ত্বেও বিরোধী লেবার দলের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাওয়া ও সংসদে ইইউ থেকে বিচ্ছেদ চুক্তি পেশ করার প্রশ্নে একমত হয়েছে টোরি দল। তবে লেবার নেতা জেরেমি করবিনের দাবী মোতাবেক ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে স্থায়ী শুল্ক ইউনিয়নের বিষয়ে থেরেসাকে সতর্ক করে দিয়েছেন কট্টর ব্রেক্সিটপন্থি নেতারা।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close