ইংল্যান্ডএডিটর্স পিকসখবরটপ স্টোরিজ

ইইউ’কে অর্থপ্রদান স্থগিত রাখার হুঁশিয়ারি বরিস জনসনের

ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় যুক্তরাজ্যর পক্ষ থেকে ৫ হাজার কোটি ডলার পরিশোধ করার কথা থাকলেও, সেটি স্থগিত রাখার পক্ষে রয়েছেন বরিস জনসন। উল্লেখ্য, বর্তমানে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে থেরেসা মের স্থালাভিষিক্ত হওয়ার প্রতিযোগিতার দৌড়ে থাকা ১১ জনের একজন বরিস। ডয়চে ভেলে

কোনও অর্থপ্রদানের আগে একটি সফল ব্রেক্সিটচুক্তির বিষয়ে ‘সর্বোচ্চ স্বচ্ছতা’ চান বলে শনিবার ‘দ্য সানডে টাইমস’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন তিনি। বরিসের মতে, ইইউ সর্বজন গৃহীত একটি ব্রেক্সিট প্রস্তাব না দেওয়া পর্যন্ত যুক্তরাজ্যের পক্ষ থেকে কোনও অর্থ পরিশোধ না করার দিকেই তার অবস্থান। এর পাশাপাশি বরিস এও ইঙ্গিত দেন, তিনি অবশ্যই আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে গৃহীত সীমান্তচুক্তি কাটছাঁট করবেন।

প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য প্রতিযোহিতায় নামার পর প্রথম কোনও সংবাদপত্রকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সাবেক ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরও জানান, ‘আমাদের মিত্র ও অংশীদারদের বুঝতে হবে এই অর্থ আপাতত স্থগিত রাখা প্রয়োজন। কেননা, এর আগে আমাদেরকে স্বচ্ছ ধারণা পেতে হবে যে ভবিষ্যতে ঠিক কী কী হতে চলেছে।’

যুক্তরাজ্যের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে শুক্রবার আনুষ্ঠানিকভাবে কনজারভেটিভ পার্টি প্রধানের পদ থেকে সরে দাঁড়ান। যািদও তার উত্তরসূরি পাওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি দায়িত্ব পালন করে যাবেন এবং সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে জুলাই মাসের শেষ পর্যন্ত সময় লেগে যাবে বলেই মনে করা হচ্ছে। এর প্রেক্ষিতে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের ১১জন সদস্য থেরেসার স্থলাভিষিক্ত হওয়ার জন্য লড়ছেন। তাদেরমধ্যে বরিসকে সামনের সারির বিকল্প হিসেবেই ভাবা হচ্ছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও বরিসকেই থেরেসার যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছেন।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close