সমগ্র বিশ্ব

বাবার চাকরি ফেরাতে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শরণাপন্ন

মাত্র ১৩ বছর বয়স। কিন্তু সংসারের করুণ অবস্থা নাড়িয়ে দিয়েছে তাকে। দীর্ঘদিন চাকরি নেই বাবার। আর সেই কারণেই বেহাল দশা সংসারের। তাই বাবার চাকরি ফেরাতে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শরণাপন্ন ১৩ বছরের সার্থক ত্রিপাঠী। এখনও পর্যন্ত মোদিকে মোট ৩৭টি চিঠি লিখে ফেলেছে এই কিশোর। খবর আজকাল

২০১৬ সাল থেকে মোদিকে চিঠি লেখা শুরু করেছিল সার্থক। গত শুক্রবার ৩৭তম চিঠিটি লেখে সে। গোটা পরিবার অর্থের জন্য যে মানুষটির দিকে চেয়ে থাকে, তাঁর রোজগার না থাকলে কী অবস্থা হয়, সেসব বিস্তারিত লিখেই প্রধানমন্ত্রীকে বহুবার জানিয়েছে সার্থক। তাই তার অনুরোধ, বাবার চাকরি যেন ফিরিয়ে দেওয়া হয়। এমনকী প্রধানমন্ত্রীকে ‘মোদি বাবাজি’ বলেও সম্বোধন করেছে সে।

সংবাদ সংস্থা এএনআই–কে উত্তপ্রদেশের এই কিশোর বলে, ‘ইউপিএসই–র অনেকে বাবাকে চাকরি ছাড়তে বলেছিলেন। তাই তিনি বর্তমানে চাকরিহীন। মোদি বাবাজিকে অনুরোধ জানিয়েছি, তিনি যেন বাবাকে সাহায্য করেন।’ এমনকী চাকরি সংক্রান্ত ইস্যুতে গোটা পরিবারকে একাধিকবার ফোনে খুনের হুমকিও দেওয়া হয়েছে বলে জানায় কিশোর। রীতিমতো আতঙ্কের মধ্যেই দিনযাপন করছে পরিবার। ৩৬টি চিঠি দেওয়ার পরও কেন্দ্রের তরফে মকোনও সাড়া মেলেনি। কিন্তু তাতেও হাল ছাড়েনি সার্থক। তার দাবি, যারা তার বাবা ও গোটা পরিবারের সঙ্গে এমনটা করছে তাদের শাস্তি পাওয়া উচিত। দ্বিতীয়বার মোদি প্রধানমন্ত্রী হওয়ায় তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়ে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র বলে, ‘শুনেছি, মোদি থাকলে সবই সম্ভব। সেই জন্যই তাঁকে অনুরোধ জানিয়েছি।’

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close