আমাদের কমিউনিটি

লন্ডনে জিএসসির সভায় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি ; বৃটেন কমিউনিটিতে তীব্র অসন্তোষ

লন্ডন থেকে কামাল চৌধুরী :
গ্রেটার সিলেট ডেভেলপমেন্ট এন্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল ইউকের গত ১৮ জুন ২০১৯ মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭ ঘটিকায় সংগঠনের সেন্টাল লন্ডনের অফিসে অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাহী কমিটির সভায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতি কিছু সদস্যের কটূক্তি প্রকাশ করা নিয়ে জিএসসির সাধারণ সদস্য ও কমিউনিটিতে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে। উক্ত সভায় সংগঠনের সিনিয়র সদস্য যুক্ররাজ্য বঙ্গবন্ধু পরিষদের সহ সভাপতি প্রগতিশীল শিক্ষক ডঃ রোয়াব উদ্দিন বাংলাদেশের জাতীয় দিবস সমূহে বঙ্গবন্ধুর প্রতি যথাযথ সম্মান প্রদর্শনের আহবান জানিয়ে একটি প্রস্তাব পেশ করেন। প্রস্তাবটি শেষ করার আগেই শুধু বঙ্গবন্ধুর নাম নিতেই সভায় উপস্থিত বিএনপির সমর্থক আব্দুল মালিক কুটি, ও জামাতি সমর্থক ইকবাল আহমেদ চৌধুরী সহ কয়েকজন জামাতি পন্থী সদস্য তীব্র প্রতিবাদ করেন ও বঙ্গবন্ধুর প্রতি অশালীন বক্তব্য দিতে থাকেন। ডঃ রোয়াব উদ্দিন কিছু বুঝে উঠার আগেই সংগঠনের সভাপতি লন্ডনের দাওয়াত ইসলামের নেতা জামাতি ব্যারিস্টার আতাউর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক খেলাফত মজলিস নেতা খসরু খানের একেবারে পাশে বসা বামিংহামের সোনালী ব্যাংক এর সাবেক ম্যানেজার জামাতি ইকবাল আহমেদ চৌধুরী তার সিট থেকে উটে ডঃ রোয়াব উদ্দিনের দিকে তেড়ে আসেন। ডঃ রোয়াব উদ্দিন জিএসসিতে স্বাধীনতা বিরোধী ও মৌলবাদীরা সংগঠনের ইমেজ নষ্ট করছে বলে সভায় অভিমত ব্যক্ত করেন। কিন্তু সভায় তাকে তার পুরো বক্তব্য রাখার সুযোগ পর্যন্ত দেয়া হয় নাই।
সভায় উপস্থিত সংগঠনের দায়িত্বশীলদের ভূমিকা ছিল এসব উশৃঙ্খল আচরণ এবং বঙ্গবন্ধুর প্রতি অশালীন ও আপত্তিজনক বক্তব্যের প্রতি প্রকাশ্য ও নগ্ন সমর্থনসূচক। শুধু তাই নয় সংগঠনের সহ সভাপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিবির নেতা এবং বর্তমানে খেলাফত মজলিস নেতা মির্জা আসহাব বেগ বঙ্গবন্ধুর প্রতি তিরস্কার প্রকাশ করতে গিয়ে তাচ্ছিল্যের সুরে বলেন, ‘শেখ মুজিব এবং জিয়াউর রহমান দুজনই বাংলাদেশের অনেক ক্ষতি করে গিয়েছেন। তাই উনাদের কাউকেই সম্মান প্রদর্শনের কিছু নাই।’ অনেকে মনে করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিবির নেতা মির্জা আসহাব বেগ, জামাতের সমর্থক জিএসসির সভাপতি ব্যারিস্টার আতাউর রহমান এবং খেলাফত মজলিস নেতা খসরু খানের প্রকাশ্য আস্কারায় বঙ্গবন্ধুর প্রতি কটূক্তিমূলক ন্যক্কারজনক ঘটনার অবতারণা করা হয়েছে।
এ ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়ার পর সংগঠনের সাধারণ সদস্য এবং কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ বিরাজ করছে। বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্বে এ ধরণের তিরস্কার ও অসম্মান দেখানোর দুঃসাহ দেখে অনেকে মনে করেন তদন্তের মাধ্যমে এদের খুঁটির জোড় কোথায় তা বের করা উচিত। বঙ্গবন্ধু ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্বে সাবেক শিবির নেতা আসহাব বেগ ও ব্যারিস্টার আতাউর রহমানের বিগত দিনে কিছু বিতর্কিত বক্তব্য সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছিল বলে শোনা গিয়েছে ।
এখানে উল্লেখ্য দীর্ঘদিন ধরে গ্রেটার সিলেট কাউন্সিলে প্রগতিশীল লোকদেরকে কোনঠাসা করে রাখা হচ্ছে। জিএসসিতে জামায়াত ও যুদ্বাপরাধীদের সমর্থনপুষ্টরা এখন শীর্ষ নেতৃত্বে থাকায় বঙ্গবন্ধুর প্রতি অসম্মান ও অবমাননাসূচক কান্ড ঘটানো হয়েছে। সংগঠনের কিছু জামাতি সমর্থনপুষ্ট নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিরা যাতে যুক্তরাজ্যস্থ হাই কমিশনের কাউকে ব্যবহার করে ভুল পথে পরিচালিত করতে না পারে তার জন্য এখনই সোচ্চার হওয়া জরুরী ।
অল ইউরোপিয়ান বঙ্গবন্ধু পরিষদের ওয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে জিএসসির সভায় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে অবমাননা করার সংবাদে তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দার ঝড় উটেছে বলে জানাগেছে। এদিকে বৃটেনের বাংলাদেশ কমিউনিটির বিভিন্নস্তরের নেতৃবৃন্দ জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতি অবমাননাকারীদের অনতিবিলম্বে সংগঠন থেকে বহিস্কার, যেসব নেতৃবৃন্দ এ ধরণের ঘৃণ্য কর্মকান্ডে সহযোগিতা করেছেন তাদের পদত্যাগসহ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জোর দাবি জানিয়েছেন । বাংলাদেশের হাই কমিশন ঘটনার বিস্তারিত খোঁজ নিয়ে জোরালো ভূমিকা রাখার দাবিও জানানো হয়েছে।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close