সোনার বাংলাদেশ

শিক্ষার্থী আবরারকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় মর্মাহত যুক্তরাজ্য

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় বাংলাদেশে অবস্থিত জার্মান দূতাবাসের নিন্দা জানানোর পর এবার বিস্ময় প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্য।

যুক্তরাজ্য হাইকমিশনের এক বার্তায় বলা হয়, ‘বুয়েটে ঘটে যাওয়া ঘটনায় আমরা বিস্মিত ও মর্মাহত। যুক্তরাজ্য বাকস্বাধীনতা, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা, মানবাধিকার ও আইনের শাসন প্রসঙ্গে নিঃশর্তভাবে অঙ্গীকারবদ্ধ।’

বুধবার (০৯ অক্টোবর) ঢাকার যুক্তরাজ্য হাইকমিশন এক বার্তায় এই প্রতিক্রিয়া জানায়।

এর আগে আবরার হত্যাকাণ্ডে প্রতিক্রিয়া জানায় জার্মানি। দেশটির দূতাবাসের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে নিন্দা জানায় জানিয়ে লিখে, ‘মত প্রকাশের স্বাধীনতা প্রতিটি গণতন্ত্রের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ভিত্তি। এটি বাকস্বাধীনতার স্বতন্ত্র অধিকার এবং মতামতের স্বাধীনতার পাশাপাশি সেই মতামত প্রকাশ্যে প্রকাশের অধিকারের নিশ্চয়তা দেয়। জার্মান সরকার নিজ দেশে ও বিশ্বব্যাপী সেই অধিকারগুলো জোর দিয়ে সমর্থন করে।

আমরা এই নীতিগুলোর কোনো লঙ্ঘনকে শাস্তিবিহীন না রাখার পক্ষে অবস্থান করি। ঢাকায় অবস্থিত জার্মান দূতাবাস গতকালের বুয়েট ছাত্র খুন হওয়ায় গভীরভাবে শোকাহত। জার্মান দূতাবাস নিহত ছাত্রের পরিবারের প্রতি সমবেদনা

উল্লেখ্য, গত রোববার (৬ অক্টোবর) দিবাগত রাতে বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (১৭তম ব্যাচ) ছাত্র ফাহাদকে মারধর করে হত্যা করা হয়। পরে সোমবার (০৭ অক্টোবর) হলের সিঁড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close