সমগ্র বিশ্ব

মারা গেছেন তাইওয়ানের সাবেক প্রেসিডেন্ট লি তেং

তাইওয়ানের গণতন্ত্রের জনক হিসেবে পরিচিত সাবেক প্রেসিডেন্ট লি তেং-হুই ৯৭ বছর বয়সে মারা গেছেন। তিনি ১৯৮৮ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বিবিসির শুক্রবারের এক অনলাইন প্রতিবেদনে এ খবর জানানো হয়েছে।

বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার প্রায় ছয় মাস পর বৃহস্পতিবার তাইওয়ানের রাজধানী তাইপেতে সেপটিক শক বা মাল্টি অর্গান ফেইলিউর হলে তিনি মারা যান। তাইয়ানে একনায়কতন্ত্রের পতনের মাধ্যমে তাইওয়ানে বহুত্ববাদ এবং গণতন্ত্রের উত্থানের জন্য কৃতিত্ব দেওয়া হয় তাকে।

পূর্বসূরী চিয়াং চিং-কুয়োর মৃত্যুর পর ১৯৮৮ সালে তিনি প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ক্ষমতায় থাকাকালীন গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক ব্যবস্থার জন্য সাংবিধানিক পরিবর্তনের নেতৃত্ব দেন তিনি। সেসব পরিবর্তনের মধ্যে জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের বিষয়টিও রয়েছে।

১৯৯৬ সালে প্রথমবারের মতো জনগণের প্রত্যক্ষ ভোটে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে তিনি বিপুল ভোটে দ্বিতীয় মেয়াদের প্রেসিডেন্ট হিসেবে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত হন। ১৯৪০ সালে গৃহযুদ্ধের পর থেকে চীন তাইওয়ানকে বিচ্ছিন্নতাকামী প্রদেশে হিসেবে দেখে আসছে, একদিন যা চীনের অংশ হবে বলে ধারণা।

তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং ওয়েন টুইটারে লিখেছেন, ‘আমাদের সাবেক প্রেসিডেন্ট লি তেং-হুইয়ের প্রয়াণ সমস্ত তাইওয়ানিদের জন্য শোকের দিন। আমাদের গর্ব ও নিজস্ব পরিচয়ের ভিত্তিতে গণতন্ত্রের ভিত্তি স্থাপন করেছিলেন তিনি। সাহসের সঙ্গে সামনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় পরবর্তী প্রজন্মকে প্রেরণা জোগাবে তার কর্ম।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close