ধর্ম

‘স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদে মিলাদুন্নবী উদযাপন হবে’

আগামী ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরি (চাঁদ দেখা সাপেক্ষে ৩০ অক্টোবর) সারা দেশে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স) উদযাপন হবে। এ উপলক্ষে গতকাল দুপুর ১২টায় ধর্ম মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে অনলাইনে আন্তঃমন্ত্রণালয়ে সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় জাতীয় পর্যায়ে কর্মসূচি প্রণয়ন এবং সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়নের জন্য বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করেন ধর্ম সচিব মো. নূরুল ইসলাম।

সভায় তিনি বলেন, কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাস মহামারী পরিস্থিতি বিবেচনায় এ বছর স্বাস্থ্যবিধি মেনে যথাযোগ্য মর্যাদায় আসন্ন পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স) উদযাপন করা হবে। এ ক্ষেত্রে প্রযুক্তিগত সুবিধা ব্যবহার করা

হবে। সভায় পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স) উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক বাণী প্রদানের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ওই দিন সরকারি, আধা-সরকারি ভবন, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, বেসরকারি ভবন ও সশস্ত্র বাহিনীর সব স্থাপনাগুলোয় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। জাতীয় পতাকা ও ‘কালিমা তায়্যিবা’ লিখিত ব্যানার ঢাকা মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ ট্রাফিক আইল্যান্ড ও লাইট পোস্টে প্রদর্শনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এ ছাড়া পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স) রাতে সরকারি ভবনগুলো ও সামরিক গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলো আলোকসজ্জা করা হবে।

সভায় সিদ্ধান্ত হয়, পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স) উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃক বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করা হবে এবং পক্ষকালব্যাপী হজরত মোহাম্মদ (স)-এর জীবনীর ওপর আলোচনাসভা ও মাহফিলসহ বিশেষ কর্মসূচি গ্রহণ করা হবে। এ ছাড়া সভায় সারাদেশে বিভাগ/জেলা/উপজেলা/সিটি করপোরেশন/পৌরসভা/সশস্ত্রবাহিনী বিভাগ/বেসরকারি সংস্থাগুলোয় হজরত মোহাম্মদ (স)-এর জীবন ও কর্মের ওপর আলোচনাসভা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠানের কর্মসূচি গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এ উপলক্ষে বাংলাদেশ টেলিভিশন, বাংলাদেশ বেতার ও প্রযুক্তির মাধ্যমে দিবসটির যথাযোগ্য গুরুত্ব তুলে ধরে বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করা হবে। শিশু একাডেমি কর্তৃক শিশুদের জন্য বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আরও দেখুন...

Close
Close