ফিচার

আত্মমর্যাদা

মানবিক গুণাবলির মধ্যে মানুষকে সম্মান প্রদর্শন করা একটি অন্যতম গুণ। সৎ স্বভাব ও সৎ আচরণের মাধ্যমে আমরা এ গুণটি জীবনের প্রতিটি কর্মক্ষেত্রে ফুটিয়ে তুলতে পারি।
আমরা নিজের সম্পর্কে যে বিচার, মতামত, মূল্যায়ন করি, সেটাই হলো আত্মমর্যাদা।

আমাদের সম্পর্কে নিজের যে আবেগীয় মূল্যায়ন এবং নিজের প্রতি নিজের যে দৃষ্টিভঙ্গি, নিজের প্রতি নিজের অনুভূতি, সেটাই হলো আত্মসম্মান বা আত্মমর্যাদা। তবে অবশ্যই ‘অহংকার’ এবং ‘আত্মমর্যাদা’ এক নয়।
‘আত্মমর্যাদা’ হচ্ছে নিজের প্রতি নিজের বিশ্বাস, সম্মানবোধ। ‘অহংকার’ হচ্ছে নিজের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণে অন্যকে অসম্মান করা।

‘আত্মমর্যাদা’ বোধ যার আছে তিনি অন্যকে অসম্মান করতে উদ্দীপিত হন না। নিজের প্রতি সম্মানবোধ অন্যকে সম্মান করার প্রেরণা যোগায়। কিন্তু ‘অহংকারী’ ব্যক্তির পক্ষে আত্মমর্যাদা বোধের অভাব ঘটে এবং অন্যকে তুলনায় খাটো করে। তিনি নিজের অবস্থানকেই সঙ্কীর্ণ করে তোলেন।

তাই নিজের আত্মমর্যাদা, আত্মসম্মানকে বাঁচানোর নাম কখনোই অহংকার হতে পারে না। তবে অহংকারী ব্যক্তিরা সেটা কখনোই বুঝতে পারেনা, কারণ তারা তাদের ক্ষনিকের জীবনের সফলতায় নিজেকে এমন ভাবে নিমগ্ন করে রেখেছেন, সামাজিক স্ট্যাটাস, সামাজিক পদ এসবের অহংকার তাদেরকে এমনভাবে ঘিরে রেখেছে চারিদিক থেকে। সেই অহংকারের চাদরে আবৃত থেকে তারা অনেক সময় ভুলে যায় অন্যদের মান-সম্মানের কথা।

মিথ্যা অহংকারে তারা এতই অন্ধ হয়ে যায় যে তারা শুধুই তাদেরকে ছাড়া, অন্যদের মান সম্মান কোন কিছুরই তোয়াক্কাই করে না। সেই অহংকারী মানুষ গুলো শুধু একটাই চায়, আর সেটা হচ্ছে, ভুল-শুদ্ধ যে কোনো অবস্থাতেই সবাই শুধু তাদেরকেই সম্মান জানাবে। তাদের প্রতিটি কাজে শুধু বাহ্ বাহ্ দিতে থাকবে, আর কখনো যদি সেই প্রতিটি কাজে বাহ্ বাহ্ জানানো মানুষ গুলি তাদের আত্মসম্মান বাঁচানোর জন্য কোন কিছুতে উত্তর দিয়ে দেয় তখন সেটা তাদের পছন্দ হয় না। কারণ তারাতো মিথ্যা অহংকারে পরিপূর্ণ সত্যকে তারা হজম করতে পারে না।

আফসোস হয় তাদের জন্য। কারণ ক্ষণস্থায়ী জীবনের কিছু সফলতাকে আল্লাহতালার দয়া মনে না করে তারা অহংকারী হয়ে উঠে। তারা ভুলে যায় অহংকার যে কত বড় ধ্বংস নিয়ে আসে। তারা ভুলে যায় ফেরাউনের পরিণতি।

“তিনটি জিনিস মানুষকে ধ্বংস করে দেয়— লোভ, হিংসা ও অহংকার”!
ইমাম গাজ্জালী (রঃ)

কুরআন-সুন্নাহর বর্ণনায় অহংকার অনেক বড় গোনাহ। অহংকারের মাধ্যমেই সংঘটিত হয়েছিল দুনিয়ায় প্রথম পাপ। তাই মহান আল্লাহতালার কাছে দোয়া করি, আল্লাহ যেন আমাদের অহংকারীদের কাছ থেকে দূরে রাখেন। আর সর্বদা নিজের অন্তরকে অহংকার মুক্ত রাখার তৌফিক দান করেন।

মরিয়ম চৌধুরী

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close