সোনার বাংলাদেশ

মোটরসাইকেল কিনে না দেওয়ায় মাকে পুড়িয়ে হত্যা, আটক ছেলে

শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলায় মোটরসাইকেল কিনে না দেওয়ায় মাকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে হানিফ নামের এক কিশোরের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার রাতে নিজের মায়ের শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় সে। গতকাল শুক্রবার হুনুফা নামের ওই নারীর মৃত্যু হয়।

আজ শনিবার দুপুরে পৌরশহরের তাতিহাটি পশ্চিমপাড়া এলাকা থেকে হানিফকে (১৪) গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তার বাবার নাম সদাগর আলী সাদার। নিহত হনুফার গ্রামের বাড়ি শেরপুর শহরের চকপাঠক এলাকায়।

জানা গেছে, হুনুফার তিন ছেলে-মেয়ের মধ্যে সবার বড় হানিফ। কয়েকদিন ধরে মায়ের কাছে মোটরসাইকেল কিনে দেওয়ার জন্য বায়না করে সে। কিন্তু তিনি রাজি না হওয়ায় গত রোববার রাতে মায়ের শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় হানিফ। অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় হুনুফাকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পরে জেলা সদর হাসপাতাল ও ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি ঘটায় তাকে রাজধানীর শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জন ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। সেখানেই গতকাল তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় হুনুফার ভাই দুলাল মিয়া বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। আজ দুপুরে হানিফকে গ্রেপ্তারের পর আদালতে তোলা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠান। শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আমিনুল ইসলাম এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ঘটনার তদন্তের পর বাকি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close