ধর্মসমগ্র বিশ্ব

মুসলিমদের জোর করে শূকরের মাংস খাওয়াচ্ছে চীন

চীনের শিনজিয়াং প্রদেশে উইঘুর মুসলিমদের ওপর দেশটির সরকারের নির্যাতনের খবর নতুন নয়। বিভিন্ন সময় গণমাধ্যমে এই সংখ্যালঘু জাতিগোষ্ঠীর ওপর নির্যাতনের তথ্য-প্রমাণ উঠে এসেছে। এবার প্রকাশ্যে এলো আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য। সম্প্রতি জানা গেছে, প্রতি শুক্রবার বন্দীশিবিরে থাকা উইঘুর মুসিলমদের জোর করে ইসলাম ধর্মে নিষিদ্ধ শুকরের মাংস খাওয়াচ্ছে শি জিনপিংয়ের সরকার।

আল জাজিরাসহ একাধিক গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উইঘুর মুসলিমদের জোরপূর্বক শূকরের মাংস খাওয়ানোর পাশাপাশি শিনজিয়াং অঞ্চলে শূকরের খামারের সংখ্যাও বাড়াচ্ছে চীন। দেশটির কারাগারে বিভিন্ন সময়ে আটক থাকা বন্দীরা বিস্ফোরক এসব তথ্য জানিয়েছেন। চীনের ধর্মনিরপেক্ষ মনোভাব সম্পন্ন করে গড়ে তুলতে বিশেষ ধরনের বন্দীশিবিরে নেওয়া হয় উইঘুর মুসলিমদের। ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক মূল্যবোধ নির্মূল করতে এসব বন্দীশিবিরেই তাদের শূকর খেতে দেওয়া হয়।

সাইরাগুল সাউতবে চীনের শিনজিয়াংয়ের রি-এডুকেশন ক্যাম্প থেকে মুক্তি পেয়েছেন দুই বছরেরও বেশি সময় আগে। তিনি দুই সন্তানের মা। কিন্তু তাকে এখনো তাড়িয়ে বেড়ায় তাদের ওপর চালানো ভয়াবহতা, অমানবিকতা আর সহিংসতা। এসবই তিনি প্রত্যক্ষ করেছেন আটক অবস্থায়।

সাইরাগুল সাউতবে বর্তমানে বসবাস করছেন সুইডেনে। তিনি একজন ডাক্তার এবং শিক্ষাবিদ। সম্প্রতি তিনি একটি বই প্রকাশ করেছেন। তাতে তিনি ওই বন্দীশিবিরের ভয়াবহতা, যা প্রত্যক্ষ করেছেন তা তুলে ধরেছেন। এর মধ্যে রয়েছে প্রহার, যৌন নির্যাতন, জোর করে বন্ধ্যাকর। সম্প্রতি তিনি এসব নিয়ে একটি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন আলজাজিরাকে।

 

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close