সোনার বাংলাদেশ

সিলেটের শাবিপ্রবিতে ৩০ ধরনের করোনার সন্ধান

করোনা ভাইরাসের নতুন ৩০ ধরনের পরিবর্তিত রূপের সন্ধান পেয়েছেন সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) জেনেটিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং ও বায়োটেকনোলজি (জিইবি) বিভাগের একদল গবেষক। যার মধ্যে করোনার ৬টি ধরন বিশ্বের কোথাও পাওয়া যায়নি। বাকি ২৪টি বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে একেবারে নতুন।

তবে অন্যান্য দেশে এই ভাইরাসগুলো সক্রিয় রয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্যের সম্মেলনকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান গবেষকরা।

গবেষক দলের সদস্য জিইবি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জিএম নূরনবী আজাদ জুয়েল বলেন, ‘আমরা সিলেট বিভাগের বিভিন্ন এলাকা থেকে করোনা ভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ করে তাদের জিনোম সিকোয়েন্স করি। সেখান থেকে আমরা করোনার জিনোমে নতুন একটা মিউটেশন (Genome: ২৭৮৬২ : DEL: ATCAT) পাই, যা আগে বিশ্বের কোথাও পাওয়া যায়নি। এ ছাড়া সুনামগঞ্জ ও হবিগঞ্জে করোনার ১০টি নমুনার জিন বিশ্লেষণ করে প্রোটিন লেভেলে ৪৭টি পরিবর্তন পাওয়া যায়। এর মধ্যে ৩০টি পরিবর্তিত করোনা ভাইরাস বাংলাদেশের পরিপ্রেক্ষিতে একেবারে নতুন। মূলত বাংলাদেশে করোনার গতি-প্রকৃতি ও বৈচিত্র্য উদঘাটনের লক্ষ্যে শাবিপ্রবির জিইবি বিভাগ এ মিউট্যান্টগুলো নিয়ে কাজ করছে। ফলে আমাদের দেশে কোন টিকা কার্যকর হবে, সেটার একটি ডিজাইন আগে থেকেই এ গবেষণাগুলোর মাধ্যমে বুঝতে পারব।’

শাবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আনোয়ারুল ইসলাম, লাইফ সায়েন্স অনুষদের ডিন ড. এসএম আবু সায়েম, জিইবি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. শামসুল হক প্রধান, সহকারী অধ্যাপক জিএম নূরনবী আজাদ জুয়েল, পিএইচডি রিসার্চ ফেলো নাজমুল হাসান প্রমুখ। সভাপতির বক্তব্যে উপাচার্য বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব অর্থায়নে আমরা করোনা শনাক্ত ল্যাব

চালু করি। আমরা করোনা ভাইরাসের প্রকৃতি ও বিস্তার নিয়ে গবেষণাও করছি, যা শাবিপ্রবির এক অনন্য অর্জন। তাই আমি সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানাই।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close