সমগ্র বিশ্ব

আফগানিস্তানে ৩ নারী সাংবাদিককে প্রকাশ্যে হত্যা

আফগানিস্তানের জালালাবাদ শহরে একটি টেলিভিশন স্টেশনের তিন নারী সাংবাদিককে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। ওই নারীরা দীর্ঘদিন যাবত হামলাকারীদের লক্ষ্যবস্তু ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর বিবিসি নিউজের

প্রতিবেদনে জানানো হয়, ওই নারীদের বয়স ১৮ থেকে ২০ বছরের মধ্যে। দুটি পৃথক ঘটনায় ওই নারীদের হত্যা করা হয়েছে তবে এসব হত্যাকাণ্ডের মধ্যে সমন্বয় ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ দিকে হামলার পর চতুর্থ আরও এক নারী গুরুতর আহত হয়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, নির্মম এ ঘটনার প্রধান হামলাকারীকে তারা গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছেন। ওই ব্যক্তির সঙ্গে সশস্ত্র সংগঠন তালিবানের সম্পৃক্ততা রয়েছে। যদিও গোষ্ঠীটির পক্ষ থেকে এই হামলায় জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করা হয়েছে।

বিশ্লেষকদের মতে, দীর্ঘদিন ধরেই দেশটির সাংবাদিক, সমাজকর্মী এবং রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ তালিবান যোদ্ধাদের হামলার শিকার হচ্ছেন। এবার যে তিনজন নারীকে হত্যা করা হয়েছে তারা বেসরকারিভাবে পরিচালিত ইনিকাস টিভি স্টেশনের ডাবিং বিভাগে কর্মরত ছিলেন। ইনিকাস টিভির প্রধান জালমাই লাতিফি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

আরও পড়ুন : মার্কিন আদালতে আল-জাজিরার বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধু পরিষদের মামলা

মার্কিন বার্তা সংস্থা এপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মুরসাল ওয়াহিদি নামের এক নারী কর্মী বাড়ি ফেরার পথে বন্দুকধারীরা তাকে গুলি করে হত্যা করে। বাকি দুজন হলেন শাহনাজ এবং সাদিয়া। তারা পৃথক হামলায় নিহত হয়েছেন। ওই নারী কর্মীরাও বাড়ি ফেরার পথেই তাদের ওপর হামলা চালানো হয়।

ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে জালমাই লাতিফি বলেছেন, হামলায় তাদের সবার মৃত্যু হয়েছে। তারা কাজ শেষে পায়ে হেঁটে বাড়ি ফিরছিলেন। হামলার ঘটনায় আহত এক নারীকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন।

ইনিকাস টিভি স্টেশন জানিয়েছে, বর্তমানে তাদের ১০ জন নারী কর্মী আছে। এর আগে গত ডিসেম্বরে মালালাই মাইওয়ান্দ নামে এক সংবাদ উপস্থাপিকা নিহত হন। এখন পর্যন্ত তাদের চারজন নারী কর্মী নিহত হয়েছেন। এ দিকে গত মাসেই রাজধানী কাবুলে সুপ্রিম কোর্টের দুই নারী বিচারককে হত্যা করা হয়।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close