আমাদের কমিউনিটি

অনলাইনে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের উস্কানি, যুক্তরাজ্যে এক ব্যক্তি আটক

অনলাইনে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রচারণার দায়ে লন্ডনে এক বাংলাদেশীকে দোষী সাব্যস্ত করেছে ব্রিটেনের আদালত। বাংলাদেশ সরকারের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস ও সহিংসতা ছড়ানোর অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

ব্রিটেনের মেট্রোপলিটন পুলিশের ওয়েবসাইটের এক তথ্যে জানা যায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাংলাদেশ ও সরকারের বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক প্রচারণা চালানোয় ওই ব্যক্তিকে কারাগারে পাঠানো

হয়েছে। মেট পুলিশের সন্ত্রাসবিরোধী ইউনিট দীর্ঘ তিন বছর তদন্তের পর উলউইচ ক্রাউন কোর্ট শুক্রবার তাকে কারাদণ্ড দেয়। দক্ষিণ লন্ডনের ৫০ বছর বয়সী মুন্না হামজা সন্ত্রাসবাদ আইন অনুসারে সন্ত্রাসবাদকে উৎসাহিত করার জন্য তিনটি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। গত শুক্রবার উলউইচ ক্রাউন কোর্ট তিন বছরের জন্য কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে তাকে।

পলিশ জানিয়েছে, হামজা ২০১৫ সাল থেকে অনলাইনে বেশ কয়েকটি পোস্টে বাংলাদেশ সরকারের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী ও সহিংসতার খবর ছড়িয়ে আসছেন। তার ওইসব পোস্টের মাধ্যমে হামজা অন্যদেরকে

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও সরকারের বিরুদ্ধে গুরুতর সহিংসতা করার আহ্বান জানিয়েছে।

২০১৮ সালের জুলাই মাসে লন্ডন পুলিশ হামজাকে দক্ষিণ লন্ডনে তার কর্মক্ষেত্র থেকে গ্রেফতার করে। ওই সময় পুলিশ হামজার কম্পিউটার, ফোন ও মেমরি কার্ডগুলো ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য জব্দ করে। ২০১৯ সালের ২৮ জানুয়ারি হামজার বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবিরোধী আইন ২০০৬-এর আলোকে অভিযোগ দায়ের করা হয়। সেখানে বলা হয়, ২০১৫ সালের ১ সেপ্টেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত হামজা অনলাইনে যেসব পোস্ট দেন, তাতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের উস্কানি দেয়া হয়।

ব্রিটিশ পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম কমান্ডের প্রধান কমান্ডার রিচার্ড স্মিথ জানান, হামজার উগ্রপন্থী ও একটি দেশবিরোধী স্ট্যাটাস সম্পর্কে আমাদের জানানোর জন্য আমি জনসাধারণকে ধন্যবাদ জানাই।

তিনি আরো বলেন, আশা করছি যে হামজার এই গ্রেফতারের মাধ্যমে জনসাধারণ একটি ম্যাসেজ পাবে। যদি কেউ অনলাইনে উস্কানিমূলক প্রচারণা চালায় তাহলে আমরা তার বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেব।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close