খেলাধুলা

নিউজিল্যান্ডে হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় ডুবলো বাংলাদেশ

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজেও হোয়াইটওয়াশের লজ্জায় ডুবলো বাংলাদেশ। টানা দুই সিরিজের সবকয়টি ম্যাচে হেরে প্রাপ্তির খাতা শূন্য টাইগারদের। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে কিউইদের কাছে ৬৫ রানের ব্যবধানে হেরেছে লিটন দাসের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ।

আজ বৃহস্পতিবার অকল্যান্ডের ইডেন পার্কে বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচটি ১০ ওভার করে কমিয়ে নেওয়া হয়। টসে জিতে ফিল্ডিংয়ে সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক লিটন দাস। টসে হেরে ব্যাট করতে এসে নির্ধারিত ওভার শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৪১ রান করে কিউইরা। জবাবে নির্ধারিত ওভারের তিন বল বাকি থাকতেই সবকয়টি উইকেট হারিয়ে ৭৬ রানে থেমে যায় টাইগারদের ইনিংসের গতি।

কিউইদের দেওয়া বড় লক্ষ্য তাড়া করতে এসে শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। দুই চারে দারুণ সম্ভাবনার জানান দিলেও ইনিংসের পঞ্চম বলে সাজঘরের পথ ধরেন সৌম্য সরকার। নিজের বলে নিজেই ক্যাচ নিয়ে সৌম্যকে সাজঘরে ফেরান টিম সাউদি। পরের বলে নতুন ব্যাটসম্যান লিটন দাসকেও ফেরান এই পেসার। পুরো সিরিজে ব্যর্থ লিটন এ ম্যাচেও শূন্য রানে ফেরেন।

শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে উঠার চেষ্টায় ব্যর্থ হন নাঈম শেখও। তৃতীয় ওভারের তৃতীয় বলে উইকেটে থিতু হওয়ার আগেই এই ওপেনারকে ফেরান টড অ্যাস্টলের। ১৯ রান করে সাজঘরে ফেরেন নাঈম। একই ওভারের শেষ বলে নাজমুর হোসেন শান্তকে (৮) বোল্ড করেন এই স্পিনার।

মাত্র ৩৫ রান তুললে না তুলতেই চার ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বিপাকে পড়া বাংলাদেশের হাল ধরেন আফিফ হোসেন ধ্রুব ও মোসাদ্দেক হোসেন। কিন্তু দলীয় অর্ধশতকের পরই উইকেটরক্ষক ডেভন কনওয়ের স্ট্যাম্পড হয়ে সাজঘরে ফেরেন আফিফ (৮)।   দলের চরম বিপর্যয়ের দিন ব্যর্থ মেহেদী হাসানও। ফিলিপসের তালুবন্দি হয়ে অ্যাস্টলের চতুর্থ শিকার হন তিনি।

সপ্তম উইকেটে জুটিতে অ্যাডাম মিলনেকে ছক্কা মেরে পরের বলেই সাজঘরে ফেরেন শরিফুল ইসলাম। একেরপর এক উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ওভারের তিন বল আগেই সবকয়টি উইকেট হারিয়ে ৭৬ রানে থেমে যায় টাইগাররা।

এর আগে, টসে হেরে ব্যাট করতে এসে মার্টিন গাপটিল ও ফিন অ্যালনের ঝড়ো ব্যাটে নির্ধারিত ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৪১ রান করে কিউইরা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭১ রান করেন অ্যালন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

নিউজিল্যান্ড: ১০ ওভারে ১৪১/৪ (গাপটিল ৪৪, অ্যালেন ৭১, ফিলিপস ১৪, মিচেল ১১*, চাপম্যান ০*; নাসুম ২-০-২৯-০, তাসকিন ২-০-২৪-১, শরিফুল ২-০-২১-১, রুবেল ২-০-৩৩-০, মেহেদি ২-০-৩৪-১)।

বাংলাদেশ: ৯.৩ ওভারে ৭৬ (নাঈম ১৯, সৌম্য ১০, লিটন ০, শান্ত ৮, আফিফ ৮, মোসাদ্দেক ১৩, মেহেদি ০, শরিফুল ৬, তাসকিন ৫, রুবেল ৩*, নাসুম ৩; সাউদি ২-০-১৫-৩, মিল্ন ২-০-২৪-১, ফার্গুসন ২-০-১৩-১, অ্যাস্টল ২-০-১৩-৪, ফিলিপস ১.৩-০-১১-১)।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close