ইংল্যান্ড

প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যে থাকছেন হ্যারি, অনিশ্চয়তায় মেগান

প্রয়াত হয়েছেন ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের স্বামী প্রিন্স ফিলিপ। আগামী ১৭ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে তার শেষকৃত্য। সেদিন ফিলিপের বিদায় অনুষ্ঠানে প্রিন্স হ্যারি উপস্থিত থাকলেও এখনো অনিশ্চয়তায় রয়েছে রাজবধূ মেগান মার্কেলের বিষয়টি। শনিবার (১০ এপ্রিল) বাকিংহাম প্যালেসের তরফ থেকে খবরটি গণমাধ্যমে জানানো হয়।

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারণে প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যে একাধিক বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। সেই মতো হয়েছে প্রস্তুতিও। বাকিংহাম প্যালেসের তরফে জানানো হয়, প্রিন্স ফিলিপের শেষকৃত্যে কোনো কমতি রাখা হবে না। প্রিন্স ফিলিপ ছিলেন ডিউক অফ এডিনবার্গ। ৬৯ বছর তিনি ও তার স্ত্রী এলিজাবেথ একসঙ্গে থেকেছেন।

এরপর শুক্রবার (৯ এপ্রিল) ৯৯ বছর বয়সে প্রয়াত হন তিনি। তার শেষকৃত্য রাজকীয় মর্যাদায় পালিত হবে। তবে জনগণের কোনো মিছিল থাকবে না। উইন্ডসোর কাসেলে নির্দিষ্ট মানুষদের সামনে শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হবে।

প্যালেসের মুখপাত্র জানিয়েছেন, ডিউকের জীবন ও রানির সঙ্গে তার ৭০ বছরের দাম্পত্যের প্রতিফলন ঘটবে অনুষ্ঠানে। পাশাপাশি ব্রিটেন ও কমনওয়েলথের জন্য তার অবদানের কথাও উঠে আসবে। কাসেলের জর্জ চাপেলে এক মিনিট নীরবতা পালনের পর হবে অনুষ্ঠান। সেখানে কারা কারা উপস্থিত থাকবেন তা এখনো জানানো হয়নি।

প্রিন্স হ্যারি থাকলেও উপস্থিত থাকছেন না মেগান মার্কেল। কারণ তিনি গর্ভবতী। চিকিৎসকরা তাকে এই অনুষ্ঠানে যাওয়ার অনুমতি দেননি।

প্রিন্স ফিলিপ ১৯৪৭ সালে রাজকুমারী এলিজাবেথকে বিয়ে করেছিলেন। ১৯৫২ সালে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ ব্রিটিশ সিংহাসনে আরোহণ করেন। তখন থেকে এ পর্যন্ত নৌবাহিনীর সাবেক কর্মকর্তা প্রিন্স ফিলিপ ২২ হাজার ২১৯টি একক সরকারি কর্মসূচিতে অংশ নেন।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close