সোনার বাংলাদেশ

বাংলাদেশি পাসপোর্ট থেকে ইসরায়েলের বিধিনিষেধ উঠে গেলো

বাংলাদেশি পাসপোর্টে ‘ইসরায়েল ছাড়া বিশ্বের সব দেশের ক্ষেত্রে বৈধ’ কথাটি আর লেখা থাকছে না। পাসপোর্ট অধিদফতরের কর্মকর্তারা বলছেন, সরকারের সিদ্ধান্তেই নতুন ই-পাসপোর্ট থেকে ইসরায়েলের প্রসঙ্গটি বাদ দেওয়া হয়েছে। এখন লেখা থাকবে–এই পাসপোর্ট বিশ্বের সব দেশের ক্ষেত্রে বৈধ। তবে বিষয়টি এখন পর্যন্ত সরকারের পক্ষ থেকে কোনও ঘোষণার মধ্য দিয়ে জানানো হয়নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব মোকাব্বির হোসেন বলেন, ‘আমাদের সংবিধানেই আছে সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব, কারও সঙ্গে শত্রুতা নয়। দেশের স্বার্থে এটা করা হয়েছে। তবে ই-পাসপোর্টে পরিবর্তন এলেও এমআরপিতে তা আগের মতোই রয়েছে।’

বাংলাদেশি নাগরিকদের পাসপোর্টে এক সময় লেখা থাকতো- ‘দিস পাসপোর্ট ইজ ভ্যালিড ফর অল কান্ট্রিজ অব দ্য ওয়ার্ল্ড এক্সসেপ্ট ইসরায়েল, তাইওয়ান, অ্যান্ড দ্য রিপাবলিক অব সাউথ আফ্রিকা’। পরে দক্ষিণ আফ্রিকা ও তাইওয়ানের নামটি ওই নিষেধাজ্ঞার তালিকা থেকে বাদ গেলেও ইসরায়েল থেকে যায়। এখন কেবল ই-পাসপোর্টে ইসরায়েল উঠিয়ে দিয়ে লেখা থাকছে- ‘দিস পাসপোর্ট ইজ ভ্যালিড ফর অল কান্ট্রিজ অব দ্য ওয়ার্ল্ড’।

ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আইয়ূব চৌধুরী বলেন, ‘পাসপোর্টের আন্তর্জাতিক মাননিশ্চিত করতে বা বৃদ্ধি করতে যা যা দরকার তা করা হয়েছে।  পৃথিবীর কোনও পাসপোর্টে বাড়তি কথা লেখা নেই।  ই-পাসপোর্ট ও মেশিন রিডেবল পাসপোর্টের এক নাগরিকের যেসব তথ্য থাকা দরবার সেগুলো রাখা হয়। সেটা পৃথিবীর সব দেশের ইমিগ্রশনের জন্য প্রযোজ্য। এর বাইরে কোনও কিছু গুরুত্বপূর্ণ না।’

অতীতে পাসপোর্টে ইসরায়েল ছাড়া পৃথিবীর সব দেশে ভ্রমণের জন্য ব্যবহারের যে সতর্ক বার্তাটি ছিল সেটি তুলে দেওয়া প্রায় এক বছরেররও বেশি সময়ের আগের সিদ্ধান্ত। এটি এখন বাস্তবায়ন হচ্ছে বলেও জানান তিনি। মহাপরিচালক বলেন, ‘আমাদের ই-পাসপোর্ট যেগুলো বিদেশে প্রিন্টের জন্য পাঠানো হয়েছিল, সেগুলো আসতে শুরু করেছে। সেসব পাসপোর্টে ওই লেখাটি নেই।’

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close