সমগ্র বিশ্ব

অস্ট্রেলিয়ায় করোনা পরীক্ষার ভুল রিপোর্ট পেয়েছে শত শত রোগী

অস্ট্রেলিয়ার সিডনির একটি ল্যাব শত শত মানুষের ভুল রিপোর্ট দিয়েছে। ওই এলাকায় করোনা আক্রান্ত বাড়তে থাকার মধ্যে ল্যাবটি শত শত মানুষকে জানিয়েছে তাদের করোনা নেই, অথচ তাদের অনেকেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

ল্যাব কর্তৃপক্ষের দাবি তথ্য প্রক্রিয়াকরণের ভুলের কারণে এই ভুল রিপোর্ট দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বড় দিনের ছুটির সময়ে এই ঘটনা ঘটেছে।

অতি সংক্রামক ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের প্রভাবে অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস প্রদেশে করোনা আক্রান্তের পরিমাণ গত কয়েক দিন থেকেই বাড়ছে। কর্মকর্তারা বলছেন, পরীক্ষার পরিমাণ বেড়ে যাওয়ার কারণে বহু নমুনা পরীক্ষা করা যায়নি।

ভুল রিপোর্ট পাওয়া অনেকেই আশঙ্কা করছেন তারা হয়তো নিজেদের অজ্ঞাতসারেই বড় দিনের সময় তাদের প্রিয়জনদের সংক্রমিত করে দিয়েছেন।

মঙ্গলবার এক বিবৃতি দিয়ে ভুলের জন্য ক্ষমা চেয়েছে সিডপ্যাথ নামের ল্যাবটি। এতে মোট ৮৮৬ রোগী ভুল রিপোর্ট পেয়েছেন। এদের মধ্যে ৪০০ জনকে দেওয়া হয়েছে করোনা পজিটিভ রিপোর্ট, কিন্তু বাস্তবে তাদের করোনা ছিল না। অন্যদিকে, ৪৮৬ জনকে দেওয়া হয়েছে করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট, যারা প্রকৃতপক্ষে করোনারোগী ছিলেন।

স্টেফানি কলোন্না নামের এক ভুক্তভোগী  বলেন, ‘বড় দিনের ছুটিতে আমি বাড়ি গিয়েছিলাম এবং এখন আমি আমার ভাতিজি ও ভাতিজাকে নিয়ে খুবই দুশ্চিন্তায় আছি। যদি তারা করোনায় আক্রান্ত হয়, সেক্ষেত্রে একমাত্র আমিই দায়ী থাকব।’

নিউ সাউথ ওয়েলস প্রাদেশিক সরকারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ব্র্যাড হ্যাজার্ড বিবিসিকে বলেন, ‘বড়দিন ও নববর্ষের ছুটি পরিবার ও স্বজনদের সঙ্গে উদযাপন করার জন্য বিপুল সংখ্যক মানুষ করোনা টেস্ট করাচ্ছেন। এতে ল্যাবগুলোর ওপর চাপ অনেক বেড়ে গেছে আর এই অতিরিক্ত চাপের কারণেই এই ত্রুটি হয়েছে।’

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close