ইংল্যান্ড

নিজের তৈরি এক্সপ্লোসিভ ডিভাইসেই মৃত্যু লিভারপুলের বোমারুর

বিস্ফোরণের জেরে লিভারপুল মহিলা হাসপাতালের বাইরে মৃত্যু হয়েছিল বোমারু এমাদ আল-সোয়ালমিনের । লিভারপুল এবং উইরাল আদালতে বয়ান দেবার সময়ে সিনিয়র পুলিশ কর্তা আন্দ্রে রেবেলো বলেছেন: “২০২১ এর ১৪ই নভেম্বর এমাদ জামিল সালমান আল-সোয়ালমিন লিভারপুল মহিলা হাসপাতালের সামনে একটি ট্যাক্সিতে মারা যান। সেই ট্যাক্সিতে ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস রাখা ছিল যা থেকে বিস্ফোরণ এবং অগ্নিকান্ড ঘটে। খুনের উদ্দেশ্য নিয়েই এই ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস তৈরি করা হয়েছিল ”।
রেবেলো বলেছেন যে, ডিভাইসটি রুটল্যান্ড অ্যাভিনিউতে আল-সোয়েলমিনের ভাড়া করা একটি ফ্ল্যাটে তৈরি করা হয়েছিল। তবে ওই সময়েই এমাদ জামিল বিস্ফোরণটি ঘটাতে চেয়েছিল কিনা তা এখনো স্পষ্ট নয় পুলিশের কাছে। তার আগেই নিজের তৈরি করা খুনি ডিভাইসে প্রাণ গেল এই তরুণের। তদন্তে শোনা যায় যে, আল-সোয়ালমিন তার ভাইকে তার মৃত্যুর দুই দিন আগে ফোন করেছিলেন এবং বলেছিলেন যে তিনি “খারাপ কিছু” করতে চলেছেন। রেবেলো বলেছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী আল-সোয়ালমিনের ভাই জানিয়েছেন বিস্ফোরণের দুই দিন আগে শুক্রবার ১২ নভেম্বর তার ভাইয়ের সাথে শেষ কথা হয়েছিল।
সেই কলের শেষের দিকে এমাদকে বলতে শোনা গেছে, ‘আমি এমন খারাপ কিছু করতে চলেছি যা আমার পরিবারকে প্রভাবিত করতে পারে ”। এমাদকে কোনো হঠকারী সিদ্ধান্ত না নিতে পরামর্শ দেন তাঁর বড় ভাই। এমাদের ভাই পুলিশকে জানিয়েছেন, ইরাকের বাগদাদে জন্মগ্রহণকারী এমাদ জামিল সালমান আল-সোয়ালমিন এর আগেও গুরুতর হামলার সঙ্গে জড়িত থাকার জন্য মধ্যপ্রাচ্যের কারাগারে ছিলেন, সেইসাথে আক্রমণাত্মক অস্ত্র রাখার জন্য লিভারপুলেও সমস্যায় পড়েছিলেন। সূত্র : দ্য গার্ডিয়ান

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Close